আবদুল্লাহ মাহফুজ অভী।।

 

হরতালের লিফলেটিং করতে গেলে সবাই ফিসফিস করে বলে ভাই আছি আপনাদের সাথে। ফিসফিস করে বলে কেন? ভয় পায়। কারে ভয় পায়? যারা ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ রেখে নিজের অপকর্মটি নিশ্চিন্তে চালাতে চায়। -ওহ।
উচ্চ স্বরে কেউ কথা বলেন না? বলেতো। কে বলে? এক ভদ্রলোক (!)। শাহবাগ মোড়ে। বাসের ভেতর হাতে লিফলেট নিয়া বলে- এতো সাহস ? হরতালের লিফলেটিং করে। পুলিশ কি করে? পুলিশ কই?
তারে কি তখন বাস ভর্তি লোক সার্পোট দিলো? নাহ দেয় নাই। তারপর কি ঘটলো? যেই তরুনকে পুলিশের ভয় দেখাইলো সে আরো জোড়ে চিল্লাইয়া বললো সুন্দরবন বাঁচানোর হরতালের লিফলেট…। তখন কি হইলো? পেছন থেকে একদল যাত্রী উঠে বললো- আমারে দেন, আমারে দেন…। এমন করে লিফলেট চেয়ে নিলো? -হ্যা।
সেই লোক কি করলো? সে মেনমেন করে বললো- উন্নয়নে বাধা…দেশে ভালোই চলছে…আর এরা ডাকে হরতাল। তখন আরেক তরুন তারে কইলো আপনি দেশদ্রোহী দালালের মতো কথা বলেন। সাহস থাকলে যুক্তি দিয়া কথা বলেন, আসেন আলোচনা করি আমাদের কোনটা ভুল…।তখন কি যুক্তি দিলো? সে মেনমেন করে বলো অন্য কর্মসূচি দেন…।
বাসের মানুষ তখন মিটি মিটি হাসে…। তরুনেরা বুঝে যায় ৭ বছরের আন্দোলন কর্মসূচী সম্পর্কে যার জানা নাই সেই বুদ্ধিপ্রতিবন্ধির জন্য এক প্যাকেট আয়োডিন লবনই সবচেয়ে উৎকৃষ্ট জবাব হইতে পারে। এইসকল লোকজনের সাথে দেখা হইলে আয়োডিন যুক্ত লবন খাওয়ার পরমর্শ দেয়ার সিদ্ধান্ত লইয়া তাহারা সামনে আগাইয়া গেলো…
২৬ তারিখ দেশ বাঁচাতে, দাসত্বের বিরুদ্ধে প্রাণ প্রকৃতির জন্য যে হরতাল ডাকা হয়েছে তা আরো বহু মানুষের কাছে পৌছে দিতে হবে যে…

 

সূত্রঃফেসবুক